Unighted Arab Emirates সংযুক্ত আরব আমিরাত সম্পর্কে যা আমরা জানি না


 সংযুক্ত আরব আমিরাত 

নাম ঃ United Arab Emirates /(UAE)
ভাষা ঃ আরবি
রাজধানী ঃ আবু ধাবী
নীতি বাক্য ঃ আল্লাহ , মাত্ভৃ্মি , রাষ্ট্রপতি
শাসন ঃ রাজতন্ত্র
জাতীয়তা সূচক ঃ আমিরাতি
রাষ্ট্রপতি  ঃ খলিফা বিন জায়েদ আন নাহিয়ান
প্রধানমন্ত্রী ঃ মোহাম্মাদ বিন রশিদ আল মাকতুম
মোট জনসংখা ঃ ৯৪ লাখ  (উইকি ২০১৭ )
অর্থনীতি ঃ পর্যটক দিয়ে সবচেয়ে 
মুদ্রা ঃ আমিরাতি দিরহাম (UAE)
ধর্ম ঃইসলাম

পোশাক ঃ নারীরা আবায়া বোরকা হিজাব আর পুরুষেরা জুব্বা , আলখাল্লা, গুত্রা এবং টুপি পরে থাকে

এশিয়ার দক্ষিণ পূর্ব কোণে আরব উপদ্বীপে প্রায় দুই লক্ষ বছর ধরে মানুষের অবস্থান রয়েছে
অতীতে হাজার হাজার বছর ধরে এই অঞ্চলের মানুষ মৌলিক চাহিদার অভাব ও দারিদ্রতার কষ্টের  মধ্য দিয়ে জীবন অতিবাহিত করেছে গত মাত্র ১০০ বছরে এক প্রকার অলোকিক ভাবে এই উপকূলের মানুষের ভাগ্য পরিবর্তিত হয়েছে  বিশেষ করে গেলো পঞ্চাশ বছরে এসব ছোট ছোট জেলে পল্লী গুলোতে গড়ে উঠেছে পৃথিবীর সর্বাধিক আধুনিক আকাশচুম্বী অট্রালিকার শহর এবং বর্তমানে হয়ে উঠেছে পৃথিবীর অষ্টম ধনী ফেডারেশন  আর সেই সেই ফেডারেশন টিই হলো সংযুক্ত আরব আমিরাত 


সংযুক্ত আরব আমিরাত  কোন দেশ নয় পারস্য উপসাগর আর আরব উপসাগর পাড়ের সাতটি অঙ্গরাজ্যের এক ফেডারেশন প্রতিটি আমিরাত এক একটি উপকূলীয় একটি জনবসতি কেন্দ্র করে  আবর্তিত ।
সংযুক্ত আরব আমিরাত  এর রয়েছে সাতটি অঙ্গরাজ্য 
  1. আবুধাবি 
  2. দুবাই 
  3. শারজাহ
  4. আজমান 
  5. ফুজাইরাহ
  6. রাস আল খাইমাহ 
  7. উম্ম আল কোয়াইন 

তারা পৃথিবীর বিভিন্ন অঞ্চলের সেরা সেরা বিষয় নিয়ে সাজিয়েছে তাদের শহর গুলো 
সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাজধানী  সবচেয়ে বড় রাজ্য  আবু ধাবি 
আর বিলাসবহুল শহর দুবাই 
সংযুক্ত আরব আমিরাতের উত্তরে পারস্য উপসাগর দক্ষিণ ও পশ্চিমে সৌদি আরব 
আর পূর্বে  ওমান ও ওমান উপসাগর অবস্থিত 
অতিতে ব্রিটিশ রা এই অঞ্চলের নাম দিয়েছিলো জলদস্যু উপকূল কারণ এই অঞ্চল দিয়ে যখনই কোন বানিজ্যিক কাফেলা বিশেষ করে যখন ব্রিটিশ জাহাজ গুলো  যেত তারা আক্রমণ করতো 
আর এসব আক্রমণ ঠেকাতে ব্রিটিশ রাও ১৭৯৭ ,১৮০৯ ও ১৮১৯ সনে আক্রমণ  বিশেষ অভিযান চালায় এরপর ১৮২০ সালে শান্তি চুক্তির স্বাক্ষরিত হলেও ১৮৩৫ সাল পর্যন্ত সংঘর্ষ চলতে থাকে পরবরতীতে ১৮৯২ সালে দুইটি চুক্তি হয়  ১৮৯২ সালের চুক্তি অনুযায়ী আমিরাতিরা ব্রিটিশ দের অনুমতি ছাড়া অন্য কোন রাষ্ট্রের সাথে সম্পর্ক তৈরি করবে না বিনিময়ে ব্রিটিশরা তাদের বিদেশী আক্রমণ থেকে রক্ষা করবে  এই চুক্তির পর থকে আরব আমিরাত চুক্তি বধ্য রাষ্ট্র  হিসেবে পরিচিত পায় ১৯৫০ এর দশকের পরে  পেট্রলিয়াম আবিষ্কার এর ফলে এসব অঞ্চল উন্নতি ও আধুনিকায়ন গঠতে থাকে ১৯৬৮ তে ব্রিটিশ রা তাদের প্রটেক্টরের বিলুপ্তি ঘোষণা করে  ১৯৭০এর দশকে ব্রিটিশ দের নিয়ন্ত্রণের বাহিরে এসে যায় । সংযুক্ত আরব আমিরাতের এই ফেডারেশনে কাতার ও বাহরাইনের ও আসার কথা ছিলো কিন্তু তারা স্বধীন থাকার সিদ্ধান্ত নেয় ।
১৯৭১ সালের ২ ডিসেম্বর আরব আমিরাত পূর্ণ সংযুক্ত হয় আর এর গঠনতন্ত্র অনুযায়ী সবসময় এর রাষ্ট্রপতি হবেন আবু ধাবির আমির ও প্রধানমন্ত্রী হবেন দুবাই এর আমির  
তাদের জাতীয়তা আমিরাতী  বর্তমানে  আমিরাতে ১ কোটির বেশি লোক থাকলেও তারা সংখ্যালঘু কেননা আমিরাতের  ৮০ শতাংশ ই প্রবাসী যাদের কে তারা নিয়ে এসেছে বিভিন্ন দেশ থেকে কর্মচারী হিসেবে 
তারা সংখ্যালঘু হলেও খুব বিলাসিতায় জীবন যাপন করে স্বধীনতার পর খুব কম সময়ে বিশ্বের উন্নত কান্ট্রিতে পরিণত হয়েছে তাদের রয়েছে অসংখ্য দৃষ্টিনন্দন ও গগণচুম্বী ভবন এমন কি বর্তমান পৃথিবীর সবচেয়ে বড় ভবন ও বিলাস বহুল হোটেল টিও এই আমিরাতেই অবস্থিত




Post a Comment

Thank You

নবীনতর পূর্বতন